মানসী কবিরাজ

 


দুটি কবিতা

নদীয়ালি

 

থেমে গেছে রাত্রিকালীন  গান

যেমন সে থেমে যেত আগেও , বরাবর

অথচ শেষ পারানির পরও

কেঁপে ওঠে বটের শিকড়

নদীর অন্ধকার স্রোত , ছলছল

ছলছল

পিপাসা কাতর 

খুঁজে ফিরি  ,

 অজস্র বোবা হাতে

খুঁজে ফিরি ,বেহালার ছড়

কোথায় রাখব নিজেকে

কী করে ঢেকে দেব  , নক্ষত্র জ্বালা !

নদীর ভিতরে আরও এক নদী  ;

 

কথা বলে

চলে ফেরে

গুপ্ত সে অক্ষরমালা

 

 

 

 

সাধন মার্গ

 

এই তো আর মা্ত্রই কয়েকটা দিন

ফেরার টিকিট হাতে দাঁড়িয়েছে শীত ,

বলেছিলে অনায়াস বলিষ্ঠ সুরে ।

তবু ঝরে যাওয়া পাতা

এবং

প্রেম

গিলে খেলো লুডোর সাপ খানি

পাখির ঠোঁট থেকে খুলে পড়লো খড়-কুটো দানা ..

তুমি নতুন সঙ্গীকে দিলে লাল নীল বসন্ত- কুরুশ

অথচ  

শুধু ‘ভাল থেকো’  কথাটিকে , একবার বুনে দেব ভেবে

আমি ঘাতক ক্যালেন্ডার উপেক্ষা ক’রে

টানটান ফ্রেমে, কোমল গান্ধারে কাশ্মীরি ফোঁড় তুলে গেছি

পার্বতী ধ্যানে

 

 

 

 

 

 

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন