সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়

 


দুটি কবিতা

 ১

নির্বাসন


আতরের গন্ধে বাঁচবে অনাবিল

তমসের শেষে
নতমুখে হোক নির্বাসন
বিবর্ণ কঙ্কাল
বেঁচে আছে এখনও দু এক প্রস্থ রঙ

সন্ধ্যা গলেছে হেমন্তের তাপে
ক্রান্তিকালে কিছু পরিশ্রম
আকাশে উড়ছে প্রেম
তাকে ধরে সক্ষম যাযাবর

পাথর চাপা অনুতাপ ঢেকে গেছে সব
প্রেমিকা হাসছে রাশি রাশি
তবু ভয়, জন্মাতে হয় এই কালান্তরে
বুকে নিয়ে বিহ্বল ছন্দপতন

থাকবে না আলোড়ন
জনপদ ভাসবে
মৃত্যুহীন পাখির মতন..

 


 

 ২

অভয়ারণ্য



বিষাদ ছুঁয়ে নেমেছে আকাশ
প্রতিধ্বনির উচ্চতায় আঘাত লেগেছে অবশেষে
তৃষিতের জলরঙে ধুয়ে যায় চন্দনশাষিত অভয়ারণ্য
বুকে জমা আবেগের কসরত
ব্রাত্য, দ্বিখন্ডিত

চেনাশোনা বর্তমান আসলে তা নয়
রহস্যে ঘেরাজাল অধিকারের আস্বাদ
ফুল ছিঁড়ে নাও থাকবে রসাল বৃন্ত
চাপা চাপা আর্তনাদ

ছড়ানো বিবেকের মায়া
পরাগের মত বহন করবে উটপাখি
বিরলে বেঁধেছে সংসার
হাতপাখার জীবনে কেউ নেই
আছে শুধু ধনুর্ধর প্রাত্যহিকী

স্ফটিকের সমানাধিকার
চোখের কোনে কালি
ভেক ধরা গঞ্জের প্রতিনিধি

আকাশে উড়িয়ে নেওয়ার ছল..

 

৩টি মন্তব্য: