মন্দিরা ঘোষ

 


কবিতা



পরিণাম

 

পরিণাম থেকে ঠোঁট  ধুয়ে নাও।

এক অলৌকিক গোলকের ধাঁধায় কেটে গ্যাছে আমাদের

কয়েকশো সৌরবছর।

 

মাটির ভাঁজে চাপা পড়া জন্মঘরের চাবি।

দোসর চেনার মন্ত্র লুকিয়ে রেখেছি পাখিদের আসবাবে।

আয়নবায়ুর আড়ালে প্রতিটি  ঘূর্ণাবর্ত সজাগ হয়ে উঠলে

বিকেলের ফোল্ডারে ভাঙা জনপদ আর মরা পালকের ক্ষোভ জমা হয়।

তবুও মেঘের খামে খুচরো  চিবুকসন্ধ্যা এঁকে দিলে একটা  সাদামাটা

সন্ধের নাম হয় তিলফুল।

 

তোমার যাপনের আলেখ্যটিপে যে  রাতের অনুস্বার সেখানে

মিশিয়ে দিয়েছ জীবনবিজ্ঞানের রক্ত ও ভূগোলের পাঠ্যশুচিতা।

আমাদের অংশত পাপের ভৌগোলিক সমীকরণে  কোনো

নদীপথের ভুমিকা  নেই। শুধুই যতিধর্মের ছায়া।

অথচ নষ্ট  শরীরের তালুকে যে সব ইজারাদার তাদের নিষ্কলঙ্ক ওকালাতনামায়

লেখা হবে উর্বর  মাঠঘাট  আর নীরক্ত জ্যোৎস্নার ক্রিয়াপদ।