শীলা বিশ্বাস



সম্পাদকীয়

সভ্যতার আদি থেকে বিচার করলে প্রাকৃতিক পরিবেশকে নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে এক একটা যুগে মানুষ তার স্বতন্ত্রতার পরিচয় দিয়েছে । আমরা তার নিরিখে  সময় ও সভ্যতাকে নামকরণ করেছি প্রস্তর যুগ ,ধাতব যুগ ইত্যাদি । যোগাযোগ প্রণালীটিও সময়ের সঙ্গে পরিবর্তিত বা বিবর্তিত হয়েছে ।একই সঙ্গে লিখন পদ্ধতিটিও । এই লিখন পদ্ধতির সঙ্গে  মানুষ তার জ্ঞান শিক্ষা সংস্কৃতি এমনকি সাহিত্যকেও সংরক্ষণ করে আসছে ।এখন সাইবার যুগ । এখন সাহিত্য সংরক্ষিত হচ্ছে অন্তর্জালে । সাহিত্যের ডিসকোর্সে অন্তর্জাল সাহিত্য কতটা প্রভাব বিস্তার করতে পারলো  তা নিয়ে মত পার্থক্য থাকতেই পারে তবে একথা অস্বীকার করার উপায় নেই ব্লগ একটি সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র এবং লেখক পাঠকের সমন্বয়সূত্র ।এখানে সহজেই পাঠকের কাছে পৌঁছানো যায় এবং পাঠকের প্রতিক্রিয়া জানা যায় । এরকম সময়ে আমরা ৫৯ জনের কাজ  নিয়ে এবং সইকথা ওয়েব পত্রিকার দ্বিতীয়  সংখ্যাটি প্রকাশ করলাম । সম্পাদকীয় লিখতে গিয়ে যেটা  মনে হয় একটি পত্রিকায় সম্পাদক ও লেখক উভয়েরই দায়বদ্ধতা আছে । আমরা চেষ্টা করি লেখকের সেরা লেখাটাই এখানে সন্নিবেশিত করার ।  লেখার মান বাছতে গিয়ে মনে হয়েছে বন্ধুকৃত্য যেন প্রাধান্য না পায় । একটি পত্রিকার  যেরকম সাধারণ পাঠক থাকে তেমনি  দীক্ষিত পাঠকও রয়েছেন । আমরা এই দু’ধরণের পাঠকের কথা মাথায় রেখে লেখা নির্বাচন করলাম । দুজন সম্পাদকের কথা মনে পড়ছে একজন বুদ্ধদেব বসু ও আরেকজন সাগরময় ঘোষ যারা অজানা বা নতুন লেখকদের পাঠকদের  সামনে তুলে ধরেছেন । এবং সইকথার সেরকম প্রচেষ্টা থাকবে । আমরা ফেস বুকে ওপেন পোস্ট এবং ব্যক্তিগত মেসেজ বক্সেও লেখা চেয়েছিলাম । বেশীরভাগ লেখক এই আহবানে সাড়া দিয়েছেন । তবে  তাদের সেরা লেখাটি  দিয়েছেন এমন নয় , চেষ্টা করেছি পাঠকের কাছে একটি স্বয়ং সম্পূর্ণ মননশীল সাহিত্যপত্র তুলে ধরার তবে আমি  যথাযথ ভাবে সম্পাদনা করতে পারছি কিনা তার বিচারের ভার আপনাদের উপর। একটি ওয়েব ম্যাগাজিনের স্থায়িত্ব অনন্ত কাল । যেকোনো সময়ে যেকোনো লেখকের লেখা পাঠ করার সুযোগ পাচ্ছি । পত্রিকা সম্পাদনার শ্রম তখনি সফল হবে  যখন লেখার মান ভালো হবে । আশা করবো লেখকরা তাদের ভালো লেখাটি পত্রিকার জন্য দেবেন ।  আপনারা আপনাদের মূল্যবান মতামত দিন যাতে ভবিষ্যতে আমরা পত্রিকার মান উন্নীত করতে পারি এবং ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন ।  

শীলা বিশ্বাস
২২.০৬.২০১৯


শীলা বিশ্বাস

ওয়েবজিনের সঙ্গে যোগাযোগের ঠিকানা
Ebongsoikotha@gmail.com