মনোজ দে

 


দুটি কবিতা

ভোরের স্বপ্নে পাওয়া কবিতা


 

পুরোনো ক্ষতির মতো তুমি আসো চৈতন্যের দিকে

স্মৃতি থেকে তুলে আনা নোটেশন বাড়িয়ে দিয়েছ

প্রতিটি ঘটনা যেন অমোঘ পুঁথির শ্লোক, রাত্রি

এখনও মুখস্থ বলি; মুদ্রাদোষে ভয় হয় খুব

 

বন্ধুরা এখনও বলে, যোগাযোগ রাখিসনি তো আর

উত্তর দিই না আমি, রাধাভাবে চেয়ে থাকি শুধু

শনিবার আসে, যায়; কোন বাস তোমাকে নামায়

হিসেব কষেছি বহু, কাটাকুটি, সামান্য মেধায়

 

বয়স এমনই বোধ পাশে চাই সে কাউকে অবাধ

তোমার গোপন সিঁড়ি, খাঁজে তার আলো নিভে যায়

কোথায় লুকোবে চিঠি ঠোঁট তাই ভীষন ব্যাকুল

এমনই আঁধার প্রিয়, তবু হায়, রোদ এসে পড়ে

 

ছায়া খুঁজে ফিরি তাই, দুই হাতে সংসার সাজায়

কোন স্বপ্ন সত্যি? ভুলে, কিছু ভোর তোমাকে পাঠায়

 

 

 

২.

সময় বিভ্রম শোনো, ঘড়ি সেই কবেকার ভুল

তারিখ মুখস্থ করি ভুলে যাই বমির মতন

কে কখন পাশে শোয়, উঠে যায়, রাত্রি থাকে বাকি

সমাজ শূন্যতা বলে, আমি বলি প্রেমের অধিক

 

কথা নেই বহুদিন, চোখে তার নিজেকে দেখিনি

পার্থিব অভীপ্সা যত দেহ-কাম-বিবাহ-বিচ্ছেদ

পূর্বেকার কুলষিত যত জ্ঞান মুছে দিয়ে দেখি 

তুমি তো রমণী নও, আমি নই তেমন পুরুষ

 

তবে কারা? কোথা থেকে উঠে আসা এ মাংসের দলা

এই প্রশ্ন তাড়া করে, তুমি যাকে ঘুম বলে মানো

আমি তাতে জেগে থাকি অবচেতনের খুব পাশে

তোমাকে নামিয়ে দেখি, হয়তো দেখেছ তুমিও

 

চিত্রকল্প পড়ে যারা দূর থেকে নিসর্গ দেখেছে

অজস্র চিৎকারে তারা, বলে যায় যৌনতা, যৌনতা

 

 


1 টি মন্তব্য:

  1. "রাধা ভাবে চেয়ে থাকি শুধু"
    এবং
    "তুমি তো রমণী নও, আমি নই তেমন পুরুষ"
    খুব সুন্দর লাগলো। উপলব্ধির গভীরতা আছে।

    উত্তরমুছুন