চিরঞ্জীব হালদার

 



দুটি কবিতা

১)

ঘড়ি



সমস্ত ঘড়ি আমার অলৌকিক অনুসন্ধানকারী।

সন্দেহবশত এক'শ আশি ডিগ্রি ঘুরে যাওয়া

স্বভাব অনুমোদন করে না।

 

রাইচাঁদ বড়াল স্ট্রিটে ঢোকার আগেই দেখি ঘড়িটা জায়গা দখল করে বসে আছে।

 

তখনো কনসার্ট শুরু হয়নি।


২)

এপ্রিল সমাচার


 

তাং-১০- এপ্রিল-২১

 

একজন প্রথিতযশার বিপ্রতীপে  বালক এক নিস্তরঙ্গ ফর্মূলা।

 

ক্ষুধার্ত কুমির আর রাগী ষাঁড়ের মধ্যে বোলতাকে

বলা হলো রেফারীর যথার্থ ভূমিকা পালন করতে।

 

গবেষণাপত্রে কোন হাড়ের ছবি দেখলে বুঝবেন

অনশনরত বাস্তুহারা শ্রমিকদের নীল নকশা।

 

পুরস্কারপ্রাপ্ত লটারি টিকিট হারানো বেহিসেবি বুদ্ধিজীবী খিদিরপুরের নীল ঘাসে শুয়ে আকাশ দেখবে।

 

বন্দিদশা কাটিয়ে আমাদের সাবালক অনটনগুলো দারুচিনি দ্বীপে  নিরুদ্দেশ হয়ে যাচ্ছে।

--------------------------------------

ছবি ঋণ: গুগল


 


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন