কাকলি মান্না




 দুটি কবিতা

অনন্ত ভ্রমন



প্রতিটা জেগে ওঠার পাশেই এক নতুন সকাল
ধোঁয়ার কুণ্ডলী বেয়ে উবে যায় আমাদের স্বপ্নের রেশ
কর্পোরেশনের হুইসেল সজাগ করছে
রাস্তা কুকুর মানুষের মেলো রাখা শরীর জুড়ে অবুঝ মন
জীবন চেয়ে ফিরে আসে
  অ্যাম্বুল্যান্স
রিয়ালিজিম কাঁপিয়ে দিচ্ছে সময়ের
  তরজা
আমাদের ছড়ান
  শিকড়  বাকড় গভীরে গেঁথে  ফেলেছে
কারা যেন বিপদ সংকেত বাজিয়ে চলেছে বন্ধ
  দরজার ওপারে
মৃত্যু এক অনিশ্চিত পাখির ডানায় ভর নেমে আসে

এভাবেই
  আমরা জেনে যাই
নিজের ভেতর হেঁটে যাওয়াই শ্রেষ্ঠ ভ্রমণ
জীবন এর গাইড লাইন




স্বপ্নের সাঁতারে পাড় ভাঙার শব্দ





এক পঙক্তি লিখব বলে কালির আবেগ
                                                    থরথর
চোখের দীঘির গায়ে শোণিতের ধারা
সর্পিল অনুভব শিরদাঁড়া
  বেয়ে
বুকের ভিতর ছড়িয়ে পড়ে
  শীতকাল

কে তুমি জ্বালিয়ে রাখ আঁধার অন্তর যার আলোয় বিছানো

সময় এক সংক্রমণের তিলক

খসে পড়া জিভ জেনেছে শীৎকারের গভীর
রাত্রি নামে জানলায়
                        থমকে যায় আঙুল
অন্ধকারের মধ্যে এক অন্ধ আলো খুঁজে পায়


--------------------------------------

ছবি ঋণ: গুগল


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন