শীলা বিশ্বাস



 সম্পাদকীয়
"এবং সইকথা''

আকাশে জলদ মেঘ হয়ে উঠছে পেজা তুলো। মাঠে বনাঞ্চলে কাশ ফুলের রুপোলি ঝলক। শরৎ প্রকৃতির বুকে পা রাখছে। আবার উৎসবের সমবেত খুশির জোয়ার আসছে। অতিমারীর প্রকোপ কিছুটা হলেও কমেছে। মাতৃশক্তির আরাধনাতে আমরা ব্যস্ত হয়ে পড়ব আর কিছুদিন পরেই।

 কিন্তু বিশ্ব রাজনীতির দিকে মুখ ঘোরালেই দেখব, এই সময়ে আফগানিস্থানে প্রকাশ্যে মেয়েদের উপর অত্যাচার নেমে আসছে ধর্মীয় আইন বলবতের ফাঁক ফোঁকর দিয়ে। স্বাধীনতা খর্ব করা হচ্ছে। সময় যেন হঠাৎ করে পিছনের দিকে হাঁটতে শুরু করেছে। শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। ধর্মের আড়ালে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে। মিউজিক স্কুল ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। অ্যাকাডেমিক শিক্ষার থেকে ধর্মীয় শিক্ষা বড় হয়ে উঠতে দেখলে বিশ বছর আগের কথা মনে পড়ে যখন স্কুল কলেজে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল। আইনকেও তো সময়ের সাথে পরিবর্তিত হতে হবে। সাহিত্য সংস্কৃতির মতো আপডেট করতে হবে সময়ের চাহিদা মেনে। সামাজিক মাধ্যম বা সংবাদ মাধ্যমের উপর নির্ভর করে যেটুকু খবর আমরা পাচ্ছি নারী ও শিশুদের জন্য যথেষ্ট উদ্বেগজনক। সঠিক তথ্য যে আমাদের কাছে পোঁছায় না বা পোঁছাতে দেওয়া হয় না সেও তো সত্য । তবে এও আমরা জানি যে অনেক বিষয়ের উপর পরস্পর বিরোধী মত উপস্থাপন করাই যায়। বিশ্ব রাজনীতির গভীরে ঢুকলে অনেক আপাত ঠিক ভুল বলে মনে হতে পারে বা উল্টোটাও। তাই আমাদের সতর্ক দৃষ্টি রইল আগামী দিনে ওখানকার পরিস্থিতির উপর। নারীদের অবস্থান বোঝার জন্য অবশ্য আমাদের দেশ বিদেশের খবর জানতে হয় না। পরিবার,সমাজ সবখানেতেই আমরা সেই বৈষম্যের শিকার হচ্ছি বা হতে দেখছি। কোভিড পরিস্থিতিতে গার্হস্থ্য হিংসা কিংবা অবাঞ্ছিত গর্ভ ধারণের উর্দ্ধমুখী পরিসংখ্যান তার ফল স্বরূপ আমরা দেখতে পাচ্ছি।

এমনিই চিরকালীন ধ্বংসে উদ্বেগে দ্বন্দ্বে এগিয়ে চলতে হয়। সন্ধান করতে হয় সংস্কৃতি সাহিত্যের মাধ্যমে এক সৃষ্টি থেকে অন্যতর সৃষ্টি ও সমাজকে। ভাষায় সাহিত্যে দর্শনে তকনিকীতে নতুন ভাবের ক্রমবিকাশ ঘটে চলে।  

এবং সইকথাও তার নিজের ছন্দে সেজে উঠেছে তার সাহিত্য সম্ভার নিয়ে উৎসবের মেজাজে। একজন লেখকের কাছে মনোযোগী পাঠক আসলে ঈশ্বর। শব্দ পূজার ফুল। তার রাগ-দুঃখ-আনন্দ-যন্ত্রণা প্রতিবাদ  কিংবা  অকারণ শব্দ নিয়ে খেলা সবটাই সে উজাড় করে দেয় সেই ঈশ্বরের পায়ে। এবারের ফুলগুলির অন্যতম ড. শুভ জোয়ারদারের সাক্ষাৎকার। আশা করি পাঠক আশাহত হবেন না। আমরা সম্প্রতি সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহকে হারিয়েছি। তারই উপন্যাসের চরিত্র যখন তার স্মৃতিচারণা করেন তখন অন্য মাত্রা পায় বৈকি। প্রবন্ধ কবিতা গল্প , কবিতা, ভ্রমণ মুক্তগদ্য সহ নিয়মিত বিভাগ নিয়ে আপনাদের দরবারে হাজির এবং সইকথা। আপনারা আপনাদের মূল্যবান মতামত দিন।

উৎসব ভালো কাটুক। সকলের জীবন মঙ্গলময় হয়ে উঠুক…

                                                                              শীলা বিশ্বাস 

   ১৯/০৯/২০২১      

 





ই মেইল আইডি: ebongsoikotha@gmail.com

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন