বর্ণজিৎ বর্মন



দুটি কবিতা

লকডাউন আর খসড়া কবিতা 
1.

মানুষ বাঁচার 
           ওয়েপন্স 
ভুলে গেলেই লণ্ডভণ্ড জগৎ চরাচর ।

মুণ্ডচ্ছেদ , সমাপিকা  ক্রিয়া 
শুরু হয় 
আলের কচুশাক , ঢেকি শাকের শরীরে  
অকথ্য নির্যাতন , মেঘেদের দলে 
কুয়াশা কুয়াশা ওড়না 

NH এ কোনো ওয়াকআউট 
চোখ জানলা খুলে তাকায় না 
দিব্যদৃষ্টি ।

একলব্যও গুরুকে মিসকল দেয় 
-আজকাল তো এহি হোতা হ্যায় না!!

কিশোর কবির জমানো রুটি 
                চাঁদের আলোমতির          
    বাঁকা আঁচলেই বাঁধা থাকে ।

অদৃষ্টকে স্পষ্ট দোষ দিতে নেই সই 
সারাদিন 
         অনলাইনে 
                    বৃষ্টিহচ্ছিল 
অদৃষ্ট জানালয় গোবর দিতে নেই সই 

2.
ছুটকি কবিতা 

সব পিপড়ে জানে চিনির রহস্য ।

ক্লান্ত ছয় মাস দুপুর খোঁজে কোথায় 
                            গ্রহণ ছায়া ফেলে ,

একটু জিরিয়ে নেব অতিথী মঞ্চে ভাষণ 
                                         দেবার আগে 
সরাইখানাতে পচা মাংসের গন্ধ ।

শিকে ছিঁড়ে গেছে গোলাপের
                     ছাদ তাই ভয়ে ভয়ে ফাঁকা

 
বৃষ্টি এলে আবার ময়দানে 
    বসতি গড়বে গোলাপি ...