গৌরাঙ্গ মিত্র





দুটি কবিতা



জগতে আনন্দ আছে



হেমকুন্ড সাহিব এর ব্রহ্মকমলগুলি একাকিত্বের কথা বলে বিলাপ করে না 
হেমকুন্ড সাহিব এর জল, টলটলে আনন্দময়
এক ফোঁটা অশ্রু জলে মেশেনি
সমুদ্রকে দেখুন অন্তহীন ভাঙ্গা-গড়ার মধ্যে তার ঢেউ গুলি খুঁজে বেড়ায় আনন্দ
তিমিটিকে দিকে দেখুন অবিরাম সাঁতারের  মধ্যে তার আনন্দ অন্বেষণ। 
চাঁদের বুড়ি চাঁদের গায়ে লগ্ন হয়ে ওই যে আকাশের মগডালে ঝুলে আছে
সে কখনো হা-হুতাশ করেছে ?
মৃত্যুকালীন জবানবন্দিতে আমার পূর্বপুরুষেরা ইথার তরঙ্গকে জানিয়ে গিয়েছেন: জগতে আনন্দ আছে দুঃখ নেই
একাকিত্বের মন খারাপ গুলো পুঁটি মাছের ঝাঁক ঠুকরে ঠুকরে খেয়ে ফেলছে।





একাহি মানেও  আকাশ


একাহি মানেও আকাশ, 
আকাশে সপ্তঋষি, ধূমকেতু উল্কা স্বপ্নছায়া সরণি , 
ব্রহ্মপুত্র নদ শুয়ে শুয়ে আকাশে জলবিম্ব দেখে। 
আমি দেখি জলস্থলে জড়াজড়ি একটাই পৃথিবী। 
সমস্ত পৃথিবী জুড়ে একটাই সরিসৃপ নদী। 
ছশো কোটি টুকরোর একটাই মানুষ সমুদ্র -বাতাস জুড়ে একটা গানের স্বরলিপি।