বিশ্বজিৎ




তিনটি কবিতা


১)
একটি রুগ্ন কবিতা

অন্ধ আর প্রেমিকার কথা
এখন বিরল প্রজাতির মত...

সবকিছু গোপন সিন্দুকে
চুপচাপ চোখ মোছে।

২)
মূর্খ

জমাট বাঁধা স্বপ্নেও
ক্ষতমুখ বেরিয়ে আসে।
প্রতিদিন যে গান গাই
যে ধুলো মেখে...
নিজেকে দেবতা সাজাই
এ ঘর-ও ঘর
আরও সামান্য হয়ে আসে।

সব ছিঁড়েখুঁড়ে দেখি, 

এখনও যথেষ্ট বর্বর আছি...



৩)
বুদ্ধ

আঁধারের ভেতর দিয়ে
বুদ্ধ হেঁটে যাচ্ছেন...
তুমি দেখতে পাচ্ছ অথবা
পাচ্ছ না।তবুও
একটা ইশারা

দিক নির্দেশ করছে