অর্ঘ্যকমল পাত্র

 


অসাড়



প্রতিটা মেঘের কথা ছিল এসে দেখে  যাবে ঠিক

কীভাবে ভিজেছি রোজদিন আর প্রতি রাতে এই

প্রথায় পারিনি বেঁচে যেতে; শুধু নিয়মমাফিক 

নাগালে না পেলে, জেনে গেছি, কোনো মুগ্ধতা নেই



তবুও ছাড়িনি লিখে গেছি শুধু, যেভাবে লিখেছে আর্ত

আঙিনায় ভাসে নৌকা আর মন ভেসে গেছে টুকরোয়

এমন দুপুরে সেই মেয়ে গানে গলা গেঁথে দিয়ে পারত

ক্রমশ বুঝিয়ে, শিখিয়ে দিতেই  সুরের আদতে খুব জোর!



সে জোরের কাছে ছিপছিপে ছেলে, কবিতা লিখিয়ে, কাঁপত…

মনে পড়ে যেত জগজিৎ সিং— হোঁঠো সে ছুঁ লো তুম…

নিরস্ত্র দাঁড়িয়ে কাঁপা আঁধারেতে, মনে মনে ছেলে ভাবত—

একদিন তাকে ভুলে যাবে ঠিক 

                                               ভেঙে গেলে ঘুম!










 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন