রিতা মিত্র



দুটি কবিতা


 ১

 দীর্ঘ নিশ্বাসের মেঘ

 

সাদা পাতার উপর অস্থিরমতি কলমের খসখসে আঁচড়

অস্পষ্ট শব্দ কিছু যেন  আ ফোটা ফুলের কুঁড়ি

 

বাসি বিছানায় সুখ বিয়োনোর তন্তু খোঁজে অজানা চোখ

এই তছনছ এর নৈরাজ্য থেকে ভালোমানুষি পা টিপে টিপে হেঁটে গেছে অন্ধ গলির অভিমুখে

 

লালিত বাসনা গুলো ভবিষ্যতের খবর না পেয়ে ইতিহাসের পাতা উল্টে সুখ খোঁজে

আর ঘনিভূত হতে থাকে দীর্ঘ নিশ্বাসের মেঘ। 


আচমন


 

কিছুক্ষণ আগেই আচমন পেরেছে নৌকোটি

আজ আর মাঝ দরিয়ায় যাবার আস্ফালন নয়

নোঙরের উপর বিশ্বাস করে টানটান মেরুদণ্ড ঢেউয়ের সিম্ফনি শুনতে মশগুল

পরস্পর বিরোধী কথায় মন চঞ্চল, 

সবুজ দ্বীপের আমন্ত্রণ

আদিম ইচ্ছের কাছে হার মানা

তার নাভি মূলে মন্থন চলছে

এখান থেকে কোনো নতুন সমুদ্র মন্থনের গল্প জন্ম নেবেনা জেনেও

ইচ্ছের জোয়ার উঠছে

তরুণ নাবিক ততক্ষণে ভাটিয়ালী সুর ধরে   যাত্রী  ডাকছে

জল ছুঁয়ে থাকা শরীর বিষন্ন রোদ্দুর মেখে বয়ে যায় সহজিয়া পথে

অক্লান্ত ঢেউ তার কোটীদেশ ছুঁয়ে আনন্দে আন্দোলিত হয়ে মনমুগ্ধকর ছলাৎছল শব্দ তোলে। 

 

 

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন