কুশল মৈত্র



দুটি কবিতা


 ১

ভোর-স্বপ্নের কলিংবেল


হঠাৎ হঠাৎ ভোরের স্বপ্নরা কলিংবেল বাজাতে থাকে অবিরাম। চলে যাই মনের গোপন সুড়ঙ্গপথে। যেখানে দাঁড়িয়ে রয়েছে বৃষ্টিতে স্নাত আজও একজন। মুখচ্ছবি পাল্টায়নি একটুও। চোখ এখন সমুদ্রের ঢেউয়ে কামনা আনে। প্রেমিকের বুকে লেগে আছে। ধারালো ছুরি। দ্বিখণ্ডিত আপেল চুষে খেতে খেতে লিপস্টিক উধাও। হাত দুটি ক্রমশ ছুটে বেড়াচ্ছে শরীরের নানা সুড়ঙ্গ পথ ধরে। ভালোবাসার প্রতিশ্রুতির বাণী সাবান জলে ফেনা তুলেছে অনেক। সেখানে নগ্নতাকে লুকিয়ে রেখেছি অপেক্ষার কুয়াশা প্রাচীর জুড়ে...



 ২

বিষ


 

বিষ ঢালো! ঢালো বিষ! 

বাতাস বিষে আসক্ত 

ভাঙছে গুহ্যসূত্র। 

চেনা মানুষগুলো বড্ড বেশি অচেনা 

কথার অক্ষরে খসে পড়ে রাতের নক্ষত্ররা 

খোলা আকাশটাকে মুড়েছে হোর্ডিং-এ।

 

ঢালো বিষ! বিষ ঢালো! 

সাধারণ আর অসাধারণের মাঝে 

মই দিয়ে ওঠা-নামাটা সহজ 

পারলে আরও সহজ করো 

এস্কেলেটরে:

 

বিষ শুষে নিচ্ছে মাটি! 

যেটুকু আলপথ দিয়ে চলে গেছে নদী 

মিশেছে সন্ধ্যাতারায়! 

সেখানে আকাশটা নীল। 

উৎসমুখ আর গভীরতা কিংবা 

নাব্যতা নিলামমুখী। 

বিষ বিকোচ্ছে চতুর্দিকে।





কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন