রাজশ্রী বন্দ্যোপাধ্যায়

 


আলেক্সান্দ্‌র সার্জেভিচ পুশকিন-এর কবিতা


গায়ক

 

আমারা অনেকই সেই নৌকাটায় ছিলাম:

কেউ কেউ ঝঞ্ঝা বাতাসের জন্য পাল বানিয়েছিল, 

অন্যেরা দৃঢ়ভাবে এবং একসঙ্গে বৈঠা টানছিল ৷ নিস্তব্ধতায় ডুবে গিয়েছিল চারিপাশ,

শক্তি আর বুদ্ধি দিয়ে পৃথু নৌকাটাকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল কান্ডারি,

আর আমি- উদ্বেগেহীন বিশ্বাসে নাবিকের জন্য গান গেয়েছিলাম .......

কিন্ত প্রবল জলোচ্ছ্বাসের নির্মম ঘূর্ণাবর্তে ঠিক তখনই সব ধ্বংস হয়েছিল….

মৃত্যু হয়েছিল সকলের..... অধিনায়ক এবং সহযোদ্ধাদের !….

শুধু আমার মত প্রহেলিকাময় চারণ কবিকে,

ছুঁড়ে ফেলা হয়েছিলে একাকী সমুদ্রতটে ৷

আমি পূর্বতন স্তুতি গাইছি, এখনও,

এবং আমার বহিরাবরণ ছিন্নবিচ্ছিন্ন, শিক্ত,

পাথরের নীচে সূর্যের তীব্র রশ্মিতে আমাকে শুষ্ক করো ৷

 

 ------------------ 

আলেক্সান্দ্‌র সার্জেভিচ পুশকিন (Alexander Sergeyevich Pushkin) জন্ম ৬ জুন ১৭৯৯

মস্কো, রুশ সাম্রাজ্য ৷ তিনি ছিলেন একজন রোমান্টিক ধাঁচের কবি ৷ অনেকেই তাকে রাশিয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ কবি ৷ এবং আধুনিক রাশিয়ান সাহিত্যের জন ৷ হিসাবে আখ্যায়িত করে থাকেন। পুশকিন সর্বপ্রথম তার কবিতা এবং নাটকে ভার্নাকুলার বাচনভঙ্গি ব্যবহার শুরু করেন। এটি গল্প বলার এমন একটি পদ্ধতি যেখানে নাটক, রোমান্টিকতা এর সংমিশ্রণে বিশেষ এক অভিব্যক্তি প্রকাশ করা হয়। রাশিয়ান সাহিত্যে এটি ছিল একেবারেই নতুন এবং এই পদ্ধতিটি পরবর্তী লেখকদের বিশেষভাবে অণুপ্রাণিত করেছিল। তিনি ইতিহাস ভিত্তিক লেখাও লিখেছিলেন। তার Marie: A Story of Russian Love-এ কার্থেরেইনের শাসনামলে রাশিয়া সম্পর্কে একটি সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। মারা যান ১০ ফেব্রুয়ারি ১৮৩৭ বয়স ৩৭ বছর বয়সে ৷