বনশ্রী রায় দাস

 

গুচ্ছ কবিতা


        সব প্রেমেই বসন্ত 

  

 

যতবার হাতছানি দিয়েছে জলঙ্গি 

ততবারই বেজেছে প্রেমিক সিন্থেসাইজার

 

মোড়েরমাথা হয়ে হল্লাপাড়া টপকে 

খুঁজে নিয়েছি নির্জন তমোঘ্ন তোকে 

খসে পড়ছে উড়ন্ত গাংশালিখের পালক

 

সোনাঝুরি পিছুটান পায়রা উড়িয়ে দিলে

ছুট্টে পালিয়ে যাবো পলাশপাড়ার মন্ডপে 

সাঁতার আঁকবো ওই ঠোঁটের উপত্যকায় 

 

তারপর একসাথে ডুবে যাবো দুধসরোবরে।

 

    

 

 

           "দ" এর বাঁকে

  

গান হারিয়ে যায় থেকে যায় সুর 

পাখির ঠোঁটে ,

প্রেম হারায় থেকে যায় গুঞ্জন 

গোপন ড্রয়ারে

 

চলে গেলে ঊষর হয় অধিকৃত 

পলল ভুবন 

কয়েক ফোঁটা অন্তর ফেঁসে যায়

"দ" এর ক্ষুরে 

 

কে না নতজানু হয় পাহাড়ি 

ঝোরার কাছে 

হয়তো মনপোড়া বাঁশির মতো

নূপুর ও কেঁদে ভাসায় ।

 

    

     সহজ বিশ্বাস


হৃদয়ের হয়না কোনো প্রতিবিম্ব 

মনকে পরানো যায় না লাগাম

শুধু ঘোড়ার শব্দ ভেসে এলে

বান ডাকে নদী-উপত্যকা  

 

জলকে ডাক পাঠাই বৃষ্টি হতে

চাঁদকে বলি ভ্রমণ শিখতে 

প্রেম আসে যায় হাওয়া পাগল 

হাতছানি বোঝে হরকরা মেঘ।

 

আমি বেদুইন হাত পেতেই থাকি 

যতক্ষণ না একখণ্ড সহজ বিশ্বাস 

আলো ফেলে যায় হৃদি-ক্যানভাসে ।